পরপুরুষের প্রেমে পাগল স্ত্রীকে বিয়েই দিয়ে দিলেন স্বামী নিজেই

এরেঞ্জ ম্যারিজে যে পাত্র যুতসই, এমন পাত্রের সাথেও মেয়ে প্রেম করলে বাবা বেঁকে বসেন। প্রেমকে মেনে না নেওয়া প্রায় সমস্ত প্রেমিকার বাবারই যেন এক মহান কর্ম। পরিবার রাজী না থাকাতে অনেক প্রেমিকযুগলই পালিয়ে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেন। বাবা ছেলে মেয়েদের প্রেম মেনে নিয়ে বিয়ে দিয়েছেন, এমন নজির দুর্লভ। কিন্তু প্রেমিকের সাথে স্বামী নিজ স্ত্রীকে বিয়ে দিয়ে দেওয়ার ঘটনা কি আমরা কখনো ভাবি? তেমনি এক ঘটনা ঘটল পশ্চিমবঙ্গের আসানসোলে।

বিয়ের পরে থেকেই স্বামীর সন্দেহ শুরু হয়েছিল। স্ত্রীর মাঝে মধ্যেই ফোনে কথা, লুকিয়ে লুকিয়ে দেখা করতে যাওয়ার খবর আগেই পেয়েছিলেন সবলু শর্মা। শেষে স্ত্রীকে শান্তি দিতে বড় সিদ্ধান্ত নিলেন তিনি। আসানসোলের চন্দ্রচূড় মন্দিরে নিজের স্ত্রীর বিয়ে দিলেন স্বামী। জানা গিয়েছে, পেশায় প্লাস্টিক কারখানার কর্মী আসানসোলের গোপালপুরের বাসিন্দা সবলু শর্মার সঙ্গে নিতুদেবীর বিয়ে হয় প্রায় ৪ বছর আগে। দম্পতির তিন বছরের এক কন্যাসন্তান রয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বিয়ের কয়েক দিন পরেই স্থানীয় এক যুবক সুনীল চৌধুরীর সঙ্গে সম্পর্কে জড়ান নিতু। পরে সবলু গোটা বিষয়টি জেনে যান। এই নিয়ে দম্পতির মধ্যে প্রায়শই বচসা চলত। কিন্তু নিতু প্রেমিক সুনীলকে ছাড়তে কিছুতেই রাজি ছিলেন না। নিতুর সঙ্গে প্রায়ই দেখা করতেন সুনীল। মোবাইলেও যোগাযোগ ছিল দু’জনের।

শেষে উপায় না মেয়ে নিতুর স্বামী সবলু নিলেন এক বড় সিদ্ধান্ত। সুনীলের সঙ্গেই নিজের স্ত্রী নিতুর বিয়ে দিতে রাজি হয়ে যান তিনি। বিষয়টি পাড়া-প্রতিবেশীরা জানলে নিতুকে খারাপ ভাববে, তাই অত্যন্ত গোপনে এই বিয়ে সম্পন্ন হয়। বিয়ের গোটা ব্যবস্থাটা আয়োজন করেন সবলু নিজেই। স্থানীয় একটি মন্দিরে গোপনে বিয়ে সারা হয়। হাসতে হাসতে প্রেমিক সুনীলের সঙ্গে বিবাহ মেনে নেনে নিতু।

আপাতত বিষয়টি নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছেন সবলু নিজেই। মেয়েকে নিজের কাছেই রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। এমন কাণ্ড দেখে হতবাক গোপালপুরের বাসিন্দারা।

 

সংবাদঃ এবেলা

Spread the love
  • 7
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    7
    Shares

আপনার মন্তব্য লিখুন