সানি লিয়নের পরবর্তী ছবি ঘিরে নানা হুমকি, পোড়ানো হয়েছে পোস্টার

বলিউডের হার্টথ্রব সানি লিয়নের যে কোনও পদক্ষেপেই এক একটি বিতর্ক সৃষ্টি করে ৷ কখনও বোল্ড পোশাকের জন্য তিনি বিতর্কের কেন্দ্রে তো কখনও তাঁর বায়োপিকের জন্য শিরোনামে এসেছেন তিনি ৷ এইবার তিনি পরবর্তী ছবির জন্যই যাবতীয় ঘটনার কেন্দ্রে ৷

সানি এই প্রথম দক্ষিণের কোনো ছবিতে অভিনয় করছেন। ইতিহাস নির্ভর ছবিটির নাম ‘বীরামহাদেবী’।  ইতোমধ্যেই সামনে এসেছে  ‘বীরামহাদেবী’-র ফার্স্ট লুক৷ নেটিজেনদের কাছে তা বেশ সাড়া ফেলেছে৷ কিন্তু বোল্ড অভিনেত্রীকে দেবীরূপে দেখতে নারাজ কর্ণাটক রাকসানা ভেদিকের যুব সংগঠন৷ পোস্টার পুড়িয়ে বিক্ষোভও দেখায় তারা৷

 এই সংগঠনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে ৷ পর্ন ছবির অভিনেত্রীকে তাঁরা কোনও ঐতিহাসিক চরিত্রে দেখতে মোটেই চাননা ৷ তাঁরা সানি অভিনীত এই ছবির পোস্টার পুড়িয়ে দিয়েছেন ৷ ছবি সংগৃহীত ৷

কর্ণাটক রাকসানা ভেদিকে সংগঠনের বক্তব্য, ‘যদি সানি লিয়ন এ চরিত্রে (বীরমাদেবী) অভিনয় করেন, তাহলে তা হবে আমাদের সংস্কৃতির জন্য অপমানজনক। বীরমাদেবী আমাদের দেবী।’

১০০ কোটি টাকা বাজেটে ‘বীরামহাদেবী’ এই সিনেমাটি তৈরি হয়েছে৷ সদ্যই মুক্তি পেয়েছে ছবির ফার্স্ট লুক৷ সানি লিয়ন রয়েছেন ছবির মুখ্য ভূমিকায়৷ তাতেই আপত্তি কেআরভি-র যুব সেনার৷ তাদের অভিযোগ, সানি লিয়নিকে অনেক সময়ই নানা বোল্ড চরিত্রে দেখা গিয়েছে৷ একজন পর্নস্টার দেবীরূপে অভিনয় করুন, তা চায় না কেআরভি-র যুব সেনা৷ তাই ফার্স্ট লুক পুড়িয়ে দেন ওই দলের সদস্যরা৷ এদিন ছবিটির পোস্টার পুড়িয়ে দিয়েই ক্ষান্ত হননি দলটির সদস্যরা। সঙ্গে স্লোগান দিতে দিতে সানি লিয়নের প্রতিকৃতিও ধ্বংস করে।

এ সংগঠনই গত বছরের ডিসেম্বরে নতুন বর্ষ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সানি লিয়নের পারফর্মের বিরোধিতা করেছিল, যা কিনা তখন আদালত পর্যন্ত গড়ায়। আদালত পরে সানিকে নিরাপত্তা বলয়ের মধ্য দিয়ে পারফর্ম করার আদেশ দিয়েছিলেন। শেষমেশ অবশ্য সানি সেখানে পারফর্ম করতে নিজ থেকেই সরে দাঁড়ান।

বীরমাদেবী প্রযোজনা করেছে পন্স স্টিফেন, তার স্টিভ কর্নার প্রতিষ্ঠানের ব্যানারে। এ ছবিতে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে দক্ষিণের ছবিতে প্রথমবারের মতো নাম লিখেছিলেন সানি।

 

Spread the love
  • 8
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    8
    Shares

আপনার মন্তব্য লিখুন