নভোচারী রাকেশ শর্মার চরিত্রে শাহরুখ খান

ভারতীয় বিমান বাহিনীর বৈমানিক রাকেশ শর্মা ছিলেন ভারতের প্রথম নভোচারী। তাঁর জীবনের উপর ভিত্তি করে পরিচালক মহেশ মাথাই একটি ছবি তৈরি করতে যাচ্ছেন, এটা অনেক দিন ধরেই শোনা যাচ্ছিল। ছবিটির নাম ‘স্যালুট’। বলিউডের একটি সূত্র থেকে জানা যায়, প্রথমে ছবিটিতে আমির খানের অভিনয়ের কথা থাকলেও আমিরই শাহরুখের নাম প্রস্তাব করেছেন। আমির খান তার নতুন প্রকল্প ‘মহাভারত’ নিয়ে এখন দারুন ব্যস্ত। যার কারণে নভোচারীর চরিত্রে শাহরুখ খানের নামটি জোড়ালো ভাবেই তিনি প্রস্তাব করেন নির্মাতাদের কাছে।

এদিকে ছবির নামও নাকি পাল্টে যাচ্ছে। ‘স্যালুট’ নয়, এবার ছবির নাম হবে ‘সারে জাহাঁ সে আচ্ছা’। এবার তা ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে নিশ্চিত করেছেন ছবির অন্যতম প্রযোজক রনি স্ক্রুওয়ালা।

Image result for ‘রাকেশ শর্মা’

রনি স্ক্রুওয়ালা আরও জানিয়েছেন, ‘সারে জাহাঁ সে আচ্ছা’ ছবির চিত্রনাট্য অনেক আগেই চূড়ান্ত করা হয়েছে। ছবির শুটিং শুরু হবে আগামী বছর। তার আগে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা দেওয়া হবে।

‘সারে জাহাঁ সে আচ্ছা’ ছবির প্রধান নায়িকার চরিত্রে প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার নাম উঠে আসে প্রথম। কিন্তু আমির না থাকায় তিনিও এই বায়োপিক থেকে সরে দাঁড়ান। নিন্দুকদের মতে, বলিউডের এই ‘দেশি গার্ল’ হয়তো তাঁর দেওয়া প্রতিশ্রুতি রেখেছেন। কারণ, ফারহান আখতারের ‘ডন’ ছবির সেট থেকে শাহরুখ খানের সঙ্গে প্রিয়াঙ্কার ঘনিষ্ঠতা বাড়ে। আর এ কথা মেনে নিতে পারেননি গৌরী খান। তিনি প্রিয়াঙ্কাকে তাঁর স্বামীর কাছ থেকে দূরে থাকতে বলেন। এরপর থেকে শাহরুখ আর প্রিয়াঙ্কা একে অপরের থেকে দূরত্ব বজায় রেখে চলেছেন। এবার জানা গেছে, ছবিতে শাহরুখ খানের বিপরীতে অভিনয় করবেন ভূমি পেডনেকর।

১৯৮৪ সালের ৩ এপ্রিল একটি সোভিয়েত মহাকাশযানে রুশ নভোচারী ইউরি মেলিশেভ (৪২) আর গেনাডি স্টেকালভের (৪৩) সঙ্গে সোভিয়েত রিপাবলিক অব কাজাখস্তানের একটি স্পেস পোর্ট থেকে মহাকাশ অভিমুখে যাত্রা করেন রাকেশ শর্মা। তিনি ছিলেন ভারতীয় বিমানবাহিনীর একজন বৈমানিক। মহাকাশ থেকে ফিরে আসার পর ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী তাঁকে প্রশ্ন করেন, মহাকাশ থেকে ভারতকে দেখতে কেমন লেগেছে? জবাবে রাকেশ শর্মা বলেছিলেন, ‘সারে জাহাঁ সে আচ্ছা’।

Spread the love
  • 4
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    4
    Shares

আপনার মন্তব্য লিখুন