নারীবাদ নারীর ফ্যাশন নয়, অস্তিত্ব রক্ষার লড়াই হয়ে উঠুক

।।চৈতী আহমেদ।।

#MeToo কে আমি নিজের অস্তিত্ব রক্ষার লড়াই মনে করি। সে যেখান থেকেই আসুক যার জবানিতেই আসুক। আমি কোনো “মাদার অফ নারীবাদী” প্রকল্পের ফাঁদে পা দিতে চাই না। আপনি এই প্রকল্পের আওতায় পা চাটা আর তেল মালিশ কর্মসূচি তে অংশ নিতে চাইলে নিতে পারেন নিজের মনের আনন্দে। আমাকে নিয়ে টানাটানি করবেন না।

আমার প্রবলেম আমি একাই সলভ করার হেডম রাখি। নিজের দোষে চিপায় পড়ে “মে লুট গ্যায়া….মে অবলা হু…. বলে কান্নাকাটি বা আত্মহত্যা করতে যাওয়াকে আমি ঘৃণা করি। পড়ে গেলে উঠে দাঁড়িয়ে গায়ের কাদা ঝেড়ে পথ চলতে পারাকে আমি নারীবাদ বলি!

নারীবাদী হওয়ার জন্য সিমন দ্য বোভোয়ার… বেটি ফ্রাইডেনদের ভেজে খাওয়া পূর্বশর্ত হতে পারে না। পুরুষতান্ত্রিক একটা সমাজে একটা ভ্যাজাইনা নিয়ে জন্মেছি এটাই আমার নারীবাদী হওয়ার জন্য যথেষ্ট। স্বামীর কাছ থেকে তালাক পাওয়া বা বাল্য বিয়ের হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য যে মেয়েটি বরিশালের অজ পাড়া গাঁ থেকে এসে লঞ্চে উঠে ঢাকার কোনো গার্মেন্টসে সেলাই মেশিনের সামনে বসে যাচ্ছে নিজের এবং দেশের অর্থনীতির চাকা ঘুরাবে বলে, সে কোথায় পাবে সিমনকে কোথা পাবে বেটি ফ্রাইডেনকে?

যে তসলিমার নাম শুনলেও শুনে থাকতে পারে, বেগম রোকেয়ার নাম জানে না! এখন নিজের ভেতরের নারীশক্তিকে যে আবিস্কার করে, ঘর থেকে বেরিয়ে এসে গার্মেন্টসে ঢুকে যাচ্ছে তাকে কি আমরা নারীবাদী বলবো না? তার চেয়ে বড় নারীবাদী কে আছে? কতজনকে চিনি দুনিয়ার সিমন…বেটিদের ভেজে খেয়েও গোলামী করে যাচ্ছে পুরুষতন্ত্রের। মুক্তির আকাঙ্ক্ষা বই থেকে ধার করে পাওয়া যায় না।

মুক্তির আকাঙ্ক্ষা নিজের ভেতরের যন্ত্রণা থেকে মুক্তোর মতো জন্ম নেয়। নারীবাদ বিষয়ে পড়াশুনা নারীবাদী নারীর জন্য ভেন্টিলেশনের কাজ করতে পারে! দরজাটা খুলে বের হওয়ার ঠেকাটা, দায়টা নারীর নিজেরই থাকতে হবে। মোটা মোটা বই পড়ে এসে যারা ফারজানা শাকিল, পারসোনায় স্পা নিতে নিতে নারীদের অশিক্ষিত মূর্খ বলে গালি দিয়ে নারীবাদ উদ্ধার করে, যারা আটা ময়দা মেখে মুখের বলিরেখা আড়ালের বৃথা চেষ্টা করতে করতে, অফ স্ক্রিনে যৌন নিপীড়কের সাথে আপোষ করে, অন স্কিনে গলাবাজি করে নিজেকে নারীবাদী বলে জাহির করতে মরিয়া হয়ে উঠে, এইসব এলিট বান্ধব নারীদের উপেক্ষা করতে শেখা ছাড়াও নারীর আসলে মুক্তি নেই।

এরাও পুরুষতান্ত্রিক নারীর প্রতিচ্ছায়া। নারীবাদ তাদের ব্যবসা, এদের চিনে রাখুন। আপনি নারী বা নারীমনস্ক এই বোধটাই নারীবাদী হওয়ার জন্য যথেষ্ট। এর জন্য পীর ধরতে হয় না, আপা ধরতে হয় না, দিদিও ধরার প্রয়োজন নেই। নারীবাদ নারীর ফ্যাশন নয়, অস্তিত্ব রক্ষার লড়াই হয়ে উঠুক!

চৈতী আহমেদ, সম্পাদক, নারী

 

Spread the love
  • 17
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    17
    Shares

আপনার মন্তব্য লিখুন