অতিরিক্ত ভাড়ার অভিযোগে ‘পাঠাও’কে নোটিশ

ভাড়া নিয়ে অনিয়ম ও প্রতারণার অভিযোগে অ্যাপসভিত্তিক মোটর বাইক ও গাড়ি রাইড সার্ভিস সেবা প্রদানকারী ‘পাঠাও লিমিটেড’-কে লিগ্যাল (আইনি) নোটিশ পাঠানো হয়েছে। পাঠাও সার্ভিসের ভাড়া কিভাবে নির্ধারণ করা হচ্ছে এবং তা কোন আইন বলে, তা ৭২ ঘণ্টার মধ্যে জানাতে এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও প্রধান প্রযুক্তি কর্মকর্তা বরাবর বুধবার এ নোটিশ পাঠানো হয়।

Image result for পাঠাও

রাজধানীর পশ্চিম শেওড়াপাড়ার শামীম স্মরণীর বাসিন্দা মো. আফজাল হোসেনের পক্ষে সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী তানজিম আল ইসলাম বুধবার ওই নোটিশ পাঠান।

নোটিশে বলা হয়, আফজাল হোসেন ‘পাঠাও’ এর বাইক সার্ভিসে যাতায়াতের জন্য বাংলামটর থেকে গন্তব্যস্থল শেওড়াপাড়া নির্ধারণ করলে ডিসকাউন্ট ব্যতীত ভাড়া ১০৫ টাকা প্রদর্শন করে। এটি কনফার্ম করে গন্তব্যস্থলে যাওয়ার পর ১৭৩ টাকা দাবি করে চালক। বাধ্য হয়ে তা পরিশোধ করতে হয়। কিছুদিন পরে ফের এ রকম ঘটনা ঘটে। ১২১ টাকা কনফার্ম করে রোকেয়া স্মরণি থেকে বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়কে আসলে চালক ১৪৯ টাকা দাবি করে।

নোটিসে বলা হয়, পাঠাও নিয়মিতভাবে তাদের চালকদের দিয়ে যাত্রীদের এই কৌশলে হেনস্তা করে বেআইনিভাবে বাড়তি ভাড়া হাতিয়ে নিচ্ছে। যা প্রতারণার শামিল। এমতবস্থায়, নোটিশ প্রাপ্তির তিন দিনের মধ্যে যথাযথ ক্ষতিপূরণ প্রদান এবং চালকদের অন্যায় দাবির বিষয়ে পদক্ষেপ নিতে অনুরোধ করা যাচ্ছে।

আফজাল হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, পাঠাওয়ের নির্ধারিত রুটে একেক সময় একেক ভাড়া প্রদর্শন করে। রাস্তায় যানজট না থাকার পরও বাড়তি ভাড়া গুনতে হচ্ছে।

তিনি বলেন, বিভিন্ন সময়ে যাতায়াতে কেন বেশি ভাড়া এসেছে, কোনো চালকই তার সদুত্তর দিতে পারেনি। এ কারণে তার মনে হয়েছে ভাড়া নির্ধারণে এক ধরনের কারচুপি হচ্ছে, যা ভোক্তার সঙ্গে প্রতারণা।

 

Spread the love
  • 7
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    7
    Shares

আপনার মন্তব্য লিখুন