বাংলাদেশে #মি-টু, যৌন হেনস্তার অভিযোগ সংবাদ পাঠকের দিকে

#মি-টু আন্দোলন বলিউড তোলপাড় করে যাচ্ছে। বলিউড থেকে ছড়িয়ে পড়েছে পুরো ভারত। সেই হাওয়া এসে লেগেছে বাংলাদেশে। ইতোমধ্যে অনেকেই নিজের জীবনে ঘটে যাওয়া যৌন হেনস্তা নিয়ে মুখ খুলেছেন। অভিযোগের তির ছুঁড়ে মেরেছেন শিল্পপতি থেকে শুরু করে সমাজের উঁচুস্তরের লোকজনের দিকে। এবার যৌন হেনস্তার অভিযোগের তিরে বিদ্ধ হলেন সংবাদ পাঠক, অনুষ্ঠান উপস্থাপক ও যাত্রি ইন্সটিটিউটের প্রতিষ্ঠাতা জামিল আহমেদ । অভিযোগ এনেছেন সাবেক সাংবাদিক, সিপিডি’র প্রকাশনা সহযোগী আসমাউল হুসনা।

আজ বৃহস্পতিবার আসমাউল হুসনা তার ফেসবুক পোস্টে জানান,  ২০১৩ সালে তার সাথে জামিল আহমেদের ফেসবুক বন্ধুত্ব হয়। বন্ধুত্বের সুবাদে একদিন এক আড্ডা থেকে ফেরার পথে জামিল আহমেদ তার প্রতি অস্বাভাবিক আচরণের বিবরণে জানান, সন্ধ্যা ৭টার দিকে আমি বাসায় ফেরার জন্য আড্ডা থেকে উঠলাম। শিল্পকলার ক্যান্টিন থেকে মৎস্য ভবনের গেইটের দিকে হেঁটে যাচ্ছিলাম। হাঁটার পথে লোকটি আমাকে বলল, “আমি তো তোমার বাবার বয়সী; এর পরেও আমরা ভালো বন্ধু হতে পারি। কি বল?” এটি বলতে বলতে সে আমার বাম কাঁধে হাত রাখলো। আমি চুপ ছিলাম আর মনে মনে ভাবছিলাম এটি হয়তো বন্ধুত্বমূলক আচরণ। তারপর উনি আমাকে বললেন শিল্পকলার আরেকটা প্রান্তে যে দিকে দুদকের অফিসের সাইড সে দিকে একটু হাঁটতে, তারপরে যেতে। (আমি জানতাম না তখন ঐ রাস্তাটি সন্ধ্যার পরে ফাঁকা ও অন্ধকার থাকতো্তো।) আমি বলাম ঠিক আছে, আমি ১০ মিনিট হেঁটে তারপর বাসায় যাবো।

রাস্তা দিয়ে হাঁটার সময় লোকটি একটি গাছের নিচে থামলো যেখানে বেশি অন্ধকার ছিলো। রাস্তাটি সম্পূর্ণ ফাঁকা ছিলো। আমি তখনো আঁচ করতে পারছিলাম না আমার সাথে খারাপ কিছু ঘটতে যাচ্ছে। লোকটি তার ব্যাগ থেকে লিপ জেল বের করে দিলো। আমাকে ও দিতে বললো। আমি বললাম, না আমি অন্য মানুষের ব্যবহৃত লিপ জেল দেই না। আমি কিছু বুঝে উঠার আগেই লোকটি আমাকে জোর করে ধরে চুমু খেলো আর আমার শরীরে বাজেভাবে হাত দেওয়া শুরু করলো। আমি প্রচন্ড ভয় পেলাম। তাড়াতাড়ি তাকে ধাক্কা দিয়ে মৎস্য ভবনের দিকে দৌড়াতে লাগলাম। রাস্তা পার হয়ে একটি রিক্সায় উঠে পড়লাম।

এই ঘটনার পর আসমাউল হুসনা তার তখনকার মানসিক অবস্থা তুলে ধরে বলেন, এই ঘটনার পর আমি মানসিকভাবে ভয়ঙ্কর আঘাত পেলাম। সারারাত কান্না করলাম এবং ঘুমাতে পারলাম না। আমি বাসা থেকে বের হতে ভয় পেতাম, নতুন মানুষের সাথে দেখা করা তো আতঙ্কের বিষয় হয়ে দাঁড়ালো। এই আতঙ্ক আর ভয় থেকে বের হতে আমার কয়েক বছর লেগেছে। সত্যি বলতে কি, এখনো এই আতঙ্ক আমার মধ্যে কাজ করে।

তিনি যৌন নিপীড়ক জামিল আহমেদের শাস্তি দাবি করেছেন।

 

Spread the love
  • 52
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    52
    Shares

আপনার মন্তব্য লিখুন