ছবি পোস্টের আগে ৩ ঘণ্টা এডিট করেন কাজল!

কাজলকে হাড়কিপটে বলেই ডাকেন তাঁর স্বামী অজয় দেবগন। এমনকি দামি উপহার দিতে ইচ্ছে করলেও নাকি অজয়কে দমিয়ে দেন বলিউডের মিষ্টিকন্যা। অজয় জানিয়েছেন, মাত্র ৫০০ টাকা দামের পোশাকও পরেন ‘কুচ কুচ হ্যায়’ অভিনেত্রী। এবার অজয় জানালেন, সামাজিক মাধ্যমে একটি ছবি পোস্ট করার আগে নাকি তিন ঘণ্টা ধরে এডিট (সম্পাদনা) করেন কাজল!

জনপ্রিয় চলচ্চিত্র নির্মাতা করণ জোহরের বিখ্যাত চ্যাট শো ‘কফি উইথ করণ’-এ হাজির হয়েছেন কাজল ও অজয় দেবগন। শোতে এই তারকা দম্পতি তাঁদের ব্যক্তিগত জীবনের গল্প বেশ খোলামেলাভাবেই ভাগাভাগি করলেন। আজ রোববার অবশ্য এই শো স্টার ওয়ার্ল্ডে সম্প্রচারিত হবে। তবে এর আগেই কয়েকটি ভিডিও প্রোমো প্রকাশ করেছে স্টার ওয়ার্ল্ডের অফিশিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্ট।

অভিনেত্রী কাজল আর নির্মাতা করণ জোহর বাল্যকালের বন্ধু। ব্যক্তিগত সম্পর্কে কখনো বড় ধরনের ছেদ পড়েনি এঁদের। তবে ২০১৬ সালে করণের ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’ ও অজয়ের ‘শিবাই’ একসঙ্গে মুক্তির পর দুর্ভাগ্যজনকভাবে তাঁদের সম্পর্কে চিড় ধরেছিল। অজয় অভিযোগ করেছিলেন, টাকাপয়সা খরচ করে নিজের সিনেমার ভালো রিভিউ করাচ্ছেন করণ। কাজল তাঁর স্বামীর পক্ষ নিয়েছিলেন সে সময়। যাহোক, পরে আবার কাজল-করণ সম্পর্কের উন্নতি হয়।

দুই বছর পর করণের শোতে কাজল ও অজয় একসঙ্গে কফি খেলেন। প্রোমোতে দেখা যাচ্ছে, করণ অজয়কে জিজ্ঞেস করছেন, তাঁরা এখন বন্ধু হতে পারেন কিনা। প্রায় ২০ বছরের বিবাহিত সম্পর্ক কাজল-অজয়ের। করণকে অজয় ‘হ্যাঁ’ বলার পর কাজল থামিয়ে দিয়ে বলেন, ‘তুমি (অজয়) ওর বন্ধু হতে পারো না, ও (করণ) আমার বন্ধু।’

অজয় জানান, সেলফি নিয়ে রীতিমতো যুদ্ধ বাধে এ দম্পতির। কাজলের নাকি সেলফি তোলার নেশা আছে এবং তিনি ইনস্টাগ্রামে ছবি পোস্ট করতে চান সবসময়। অজয় বলেন, কাজল ও তাঁদের ১৫ বছরের কন্যা নিশা একটি ছবি পোস্ট করার আগে মাঝেমাঝে তিন ঘণ্টা ধরে সম্পাদনা করেন।

বিয়ের আগে অজয়-কাজলের প্রেম নিয়েও খোলামেলা আলাপ করেন এ যুগল। অজয় বলেন, “অন্যান্য প্রেমিক-প্রেমিকার মতো আমরা কখনো একে-অপরকে ‘আই লাভ ইউ’ বলিনি। কখনো আনুষ্ঠানিকভাবে প্রেমের প্রস্তাবও দেইনি। আমরা একসঙ্গে বেড়ে উঠেছি। বিয়ে নিয়েও কখনো আলাপ করিনি।”

এই শোতে তারকা দম্পতি অজয়-কাজলকে পায়ে পা ঠুকে কথা বলতে দেখা যাবে। বি-টাউনের সবাই জানেন, কাজল কী প্রাণবন্ত, হাস্যোজ্জ্বল আর পাগলামিতে পূর্ণ একজন মানুষ। স্বামী অজয় স্ত্রীর এই ছেলেমানুষি বেশ উপভোগ করেন।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আপনার মন্তব্য লিখুন