মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি শ্রমিককে প্রকাশ্যে পিটিয়ে হত্যা

মালয়েশিয়ায় মো. জামাল মিয়া (২৮) নামের এক বাংলাদেশি শ্রমিককে প্রকাশ্যে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। সোমবার স্থানীয় সময় সকাল ৭ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত জামাল কুমিল্লা সদর থানার মদিনানগর এলাকার মো. জলিল মিয়ার ছেলে। জামালের স্ত্রী ও তিন সন্তান রয়েছে।

একাধিক সূত্রে জানা গেছে, সোমবার মালয়েশিয়ার সানওয়ে মেনতারি এলাকা থেকে পুলিশ জামালকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে ইউনিভার্সিটি মালায় হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৪ ডিসেম্বর মঙ্গলবার জামাল মৃত্যুবরণ করে। জামাল মালয়েশিয়ায় ৯ বছর ধরে অবস্থান করছিল এবং স্থানীয়  গ্লোভটনিক্স ইলেকট্রনিক্স নামে একটি ফ্যাক্টরিতে কাজ করতো।

Image result for মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশিকে প্রকাশ্যে পিটিয়ে হত্যা

নিহত জামালের শ্যালক মালয়েশিয়া প্রবাসী মো. লিটন মিয়া জানান, জামাল মিয়া সোমবার সকাল ৭ টায় কাজের উদ্দেশে বাসা থেকে বের হয়ে সানওয়ে মেনতারি কোর্ট এলাকায় গেলে আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা মালয়েশিয়ান ৪ জন যুবক ও ১ মেয়ে মিলে তাকে হকিষ্টিক দিয়ে বেদম পিটাতে থাকে এবং ঘটনাটি স্থানীয় সিকিউরিটি ও লোকজনের সামনে ঘটলেও তাকে বাচাঁতে কেউ এগিয়ে আসেনি। ১ ঘণ্টা পর পুলিশ এসে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা যায়।

এ ঘটনায় কোনো মামলা দায়ের হয়েছে কিনা জানতে চাইলে জামালের শ্যালক লিটন জানান, আজ (বুধবার) তার ময়নাতদন্ত হওয়ার কথা রয়েছে। তদন্তের পর থানায় (বালাই) একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হবে। এছাড়া ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হলে তার লাশ কয়েক দিনের মধ্যেই দেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হবে বলে জানান লিটন।

কি কারণে তাকে এভাবে নির্মমভাবে পিটিয়েছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে কোম্পানির সুপারভাইজার লক্ষীপুর জেলার মো. মুসলেহ হোসেন বলেন,  জামাল আমার অধীনেই কাজ করত। ঘটনার খবর পেয়ে আমি হাসপাতালে তাকে দেখতে গিয়েছিলাম তখন তার জ্ঞান ছিল। তার কাছে হামলার কারণ সম্পর্কে  জানতে চাইলে সে আমাকে জানায় এই হামলার আগে একটি সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্র তাকে একটি মেয়ে দিয়ে ব্ল্যাকমেইল করে। পরে তার কাছে মোটা অংকের টাকা দাবি করে। তাদের চাহিদামত টাকা দিতে না পারায় পূর্বপরিকল্পিতভাবেই তার উপর এই নির্মম নির্যাতন চালানো হয়।

এ ঘটনায় মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনে যোগাযোগ করা হলে শ্রম কাউন্সিলর মো. সায়েদুল ইসলাম বলেন, এমন ঘটনায় কারা জড়িত, কেনইবা তাকে হত্যা করা হয়েছে খতিয়ে দেখে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

Spread the love
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    2
    Shares

আপনার মন্তব্য লিখুন